ঠোট লাল করার সহজ উপায়

ঠোট লাল করার সহজ উপায়

ঠোট লাল করার সহজ উপায়



অবহেলা,অযত্ন এবং কিছু বদঅভ্যাসের কারণে ঠোঁটের স্বাভাবিক ভাব নষ্ট হয়ে কালচে ও মলিন হয়ে যায়। আবার অনেকে আছে যাদের ত্বক ফর্সা কিন্তু ঠোঁট কালো। আবার অনেকে ধূমপান করার ফলে ঠোঁট কালো হয়ে যায়। সূর্যের আলো,অ্যালার্জি,হরমন সমস্যা ইত্যাদি কারণে ঠোঁট কালো হয়ে যায়। তাই নিয়মিত সঠিক নিয়মে ঠোঁটের যত্ন নিলে কালো ঠোঁট লাল করা সম্ভব। আবার অনেকের ঠোঁট বংশগত কারণেই কালচে হয়ে থাকে।

তাই যাদের ঠোঁট কালো তারা এই ঠোঁট নিয়ে অনেক সমস্যায় পরেন। তাই তারা ভাবে কিভাবে লাল করা সম্ভব।

তাহলে জেনে নেয়া যাক,কিভাবে কালো ঠোঁট লাল করা সম্ভব-

১। লেবুঃ

প্রতি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে একটি লেবু কেটে নিয়ে আপনার ঠোঁটের উপরে সরস অংশটি আস্তে আস্তে  ঘষুন। এরপর পরের দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে, ঠোঁট ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। এভাবেই প্রতি রাতেই এই রুটিনটি পুনরাবৃত্তি করুন যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনি ফলাফল দেখতে না পান। আপনার কালো ঠোঁট লাল হতে এটি 30 দিন সময় নিতে পারে।

২। চুনঃ

চুন হল একটি সাইট্রাস ফল। এতে রয়েছে অ্যান্টি-মেলানিন উপাধান। প্রথমে একটি ছোট পাত্রে একসাথে ১/২ চা চামচ তাজা চুনের রস নিন। এরপর ১ চা চামচ মধু এবং গ্লিসারিন ১ চা নিন।ভালভাবে সব উপকরন মিশিয়ে শুকনো হওয়ার আগে আলতো করে আপনার ঠোঁটে মিশ্রণটি ধীরে ধীরে অ্যাপ্লাই করুন। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে, ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন।

৩। ডালিমঃ

২০০৫ সালের একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে ডালিমের নির্যাস ত্বকের হাইপারপিগমেন্টেশন হালকা করতে সাহায্য করে। ১ টেবিল চামচ ডালিমের বীজ নিন,এরপর ১ টেবিল চামচ তাজা দুগ্ধ ক্রিম এবং ১ চা চামচ গোলাপ জল নিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করুন। এবার আস্তে আস্তে প্রায় তিন মিনিটের মত আপনার ঠোঁটে পেস্টটি আস্তে আস্তে অ্যাপ্লাই করুন, তারপরে ঠান্ডা জলে আপনার ঠোঁট টি ধুয়ে নিন। এভাবে  প্রতিদিন পুনরাবৃত্তি করতে থাকুন। এতে আপনার কালো ঠোঁট লাল হয়ে যাবে।

৪। হলুদঃ

এক গবেষণা অনুসারে দেখা গেছে হলুদ মেলানিন ইনহিবিটার হিসাবে কাজ করতে সাহায্য করে। একটি ছোট পাত্রে হলুদের এই মশ্রন টি মিশ্রিত করুন।  ১ টেবিল চামচ দুধ এর সাথে পরিমান মত হলুদের গুরা নিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এরপর আপনার ভেজা আঙুলের সাহায্যে পেস্টটি আপনার ঠোঁটে ঘষুন আলত করে। এটি প্রায় পাঁচ মিনিটের জন্য ঠোটে লাগিয়ে রাখুন। এরপর শীতল পানি দিয়ে ধীরে ধীরে আপনার ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। ঠোঁট শুকানোর পরে আপনার পছন্দের  ময়েশ্চারাইজারটি লাগিয়ে নিন।

৫। মাদক থেকে দূরে থাকাঃ

ধূমপানের মতো অভ্যাস, ধোঁয়া,বায়ু এবং রাসায়নিকগুলি ফলে অকাল বয়সের ত্বককে অস্থায়ীভাবে ঠোঁট কে অন্ধকার বা কুঁচকানো দেখা দেয়। এসবের ফলে আপনার ঠোঁটের রঙকে বিবর্ণ চেহারা দেখা দেয়। সিগারেট এবং সেকেন্ডহ্যান্ডের ধোঁয়া এড়ানো আপনার ঠোঁটের চেহারা উন্নত করতে সাহায্য করবে। তাই এগুলো এরিয়ে চলুন।

৬। নারকেল তেলঃ

আপনার আঙুল এ খুব অল্প পরিমাণে নারকেল তেল নিন এবং আলতো করে এটি আপনার ঠোঁটের উপরে সমানভাবে অ্যাপ্লাই করুন। যেকোন সময় আপনি দিনের বেলা এবং রাতে বেলায় ঘুমাতে যাওয়ার আগেও এটি একাধিকবার ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনার ঠোঁট লাল হবে।

৭। গোলাপ জলঃ

একটি পাত্রে দুই ফোঁটা গোলাপজল এবং এর সাথে ছয় ফোঁটা মধু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর এই মিশ্রণটি আপনার ঠোঁটে প্রতিদিন তিন থেকে চার বার প্রয়োগ করতে থাকুন। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এই মিশ্রণটিও লাগাতে পারেন। এতে আপনার ঠোঁট লাল হবে।

৮। বাদামঃ

একটি ছোট পাত্রে, ১ টেবিল চামচ তাজা দুগ্ধ ক্রিম নিন এবং সাথে পর্যাপ্ত বাদাম গুঁড়া মিশিয়ে নিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। এরপর আপনার ঠোঁটে পেস্টটি ম্যাসাজ করুন।  তিন থেকে পাঁচ মিনিটের জন্য এটি আপনার ঠোঁটে শুকিয়ে। হালকা গরম জলে ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। এই প্রক্রিয়াটি প্রতিদিন পুনরাবৃত্তি করুন। এতে আপনার ঠোঁট লাল হবে।


৯।শসার রসঃ

একটি ব্লেন্ডারে আধা, শসা এবং রসুন এর রস একসাথে মিশ্রিত করে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা  করুন। মিশ্রিত রস ঠান্ডা হয়ে গেলে, এতে একটি তুলার বল ডুবিয়ে তুলার বলটি আলতো করে আপনার ঠোঁটে লাগান। এভাবে প্রায় ৩০ মিনিট মশ্রিত রস টি আপনার ঠোঁটে লাগাতে থাকুন। তারপরে ঠান্ডা  জল দিয়ে আপনার ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। এই প্রক্রিয়াটি প্রতিদিন পুনরাবৃত্তি করুন। এতে আপনার ঠোঁট লাল হবে।


এছাড়া সার্জারির মাধ্যমেও আপনার কালো ঠোট কে গোলাপী বা লাল করতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া এগুলো করা আপনার উচিত হবে না। অভিজ্ঞ ডাক্তারে পরামর্শ ছাড়া করলে আপনার সমস্যা হতে পারে।

1 Comment

  1. আর্টিকেলটিতে বাস্তবসম্মত তথ্য দেয়া হয়েছে তথ্যগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে অনেকটা উপকৃত হওয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

eleven − six =