শীতকালে ত্বকের যত্ন

শীতকালে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিতে হয় ?

শীতকালে ত্বকের যত্ন


শীতকাল মানেই হচ্ছে শুষ্ক। এসময় আবহাওয়া হয়ে উঠে শুস্ক,সেই সাথে মানুষের ত্বক। আর শুষ্কতার জন্য ত্বকে সৃষ্টি করে নানা সমস্যা এবং সৌন্দর্যেরও হানি ঘটে ব্যাপক। ত্বকের প্রধান শত্রু হচ্ছে শীতকাল। তাই এখন থেকেই শুরু হোক ত্বকের বাড়তি যত্ন। ত্বককে কোমল, সজীব রাখতে আমরা নিয়র এসেছি কিছু টিপস।

তাহলে জেনে নেই কিভাবে শীতকালে ত্বকের যত্ন নিতে হবে-


হাল্কা গরম জলে গোসল করুন

শীতকালে ঠাণ্ডা জল ব্যবহার করা যেমন কষ্টকর, আর তেমনি ত্বকের জন্য ক্ষতিকরও। কারণ ঠাণ্ডা জলে গোসল করলে হঠাৎ করে ঠাণ্ডা লেগে যেতে পারে। তাই আমাদের শুধু মুখ বা হাত ধুতে নয় গোসল করার সময় হাল্কা গরম জল ব্যবহার করা উচিত। কারণ,হাল্কা গরম জল ত্বকে প্রয়োজনীয় পরিমাণে তৈলাক্তভাব বজায় থাকে।




রোজ ওয়াটার আর গ্লিসারিন

রোজ ওয়াটার আর গ্লিসারিন ত্বকের সুরক্ষায় শীতের এ সময়ে লোশনের পাশাপাশি এটি ব্যবহার করতে পারেন। এ মিশ্রণটি যে কোনো ত্বকে জন্য খুব দ্রুততার সঙ্গে যেমন কাজ করে, তেমনি ত্বক রাখে মোলায়েম ও প্রাণবন্ত। কিন্তু অনেকেই আবার গ্লিসারিন পছন্দ করেন না। তাদের ক্ষেত্রে গ্লিসারিন সরাসরি ত্বকে ব্যবহার না করে এর সাথে ওয়াটার মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।  

এই মিশ্রণ টি আপনার ত্বক যেমন মসৃন করবে, তেমনি ত্বকে থাকা নানা রকম সমস্যা দূর করবে। এই মিশ্রনটি রাতে ঘুমানোর আগে ব্যবহার করবেন। এতে করে আপনার ত্বক ধুলাবালি থেকে মুক্ত থাকবে। তাই আপনার ত্বক মসৃন ও উজ্জ্বল  রাখতে রোজ ওয়াটার আর গ্লিসারিন ব্যবহার করতে পারেন,এর ফলে ত্বকের কালচে ও খসখসে ভাব দূর হবে।



সঠিক ক্রিম বেছে নিন

শীতে অনেকেই পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করে থাকেন,কিন্তু এটা ব্যবহার করার কিছু সময় পর ত্বককে পুনরায় শুষ্ক করে তোলে। তাই শীতকালে ওয়াটার বেসড ক্রিম ব্যবহার না করে অয়েল বেসড ক্রিম মাখা ভালো। এতে করে ত্বক আদ্র থাকে। এছাড়াও, ল্যাভেন্ডার, ক্যামোলিন, জোজোবা ইত্যাদি  শীতকালে নানা সুগন্ধে ভরা বডি অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।



ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করুন

শীতে ত্বকের যত্ন নিতে শুরুতে একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার বেছে নিন আপনি। বাজার থেকে বাদাম তেল বা এভাকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার কিনতে পারেন। এগুলো আপনার ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করবে। আপনার ত্বক যতবার  শুষ্ক মনে হবে ততবার এটি ব্যবহার করুন। এতে আপনার ত্বক ভালো থাকবে।

নিয়মিত পানি পান করুন

শীতকালে গরম লাগে না তাই পিপাসাও লাগে না, তাই আমরা অনেকেই খুব কম পরিমাণ পানি পান করি  কিন্তু এটা শরীরের জন্য ভালো নয়। তাই শরীরের ভেতরে তাপমাত্রা ঠিক রাখতে পানি পান করা আমাদের খুবই জরুরি। তাই আমাদের উচিৎ শীতকালে পানি খানিকটা গরম করে পান করা। এর সঙ্গে লেবুর রস কয়েক ফোঁটা মিশিয়ে নিয়ে পান করলে ভালো উপকার পাওয়া যাবে।



রাতে ক্রিম মেখে ঘুমাতে পারেন

 

আমাদের সবার উচিৎ শীতকালে শরীরকে আদ্র রাখা। আর সেজন্য প্রয়োজন অনুযায়ী আমাদের সঠিক ক্রিম ব্যবহার করা। আমাদের সারা শরীরে ভিতর সব থেকে বেশি শুষ্ক থাকে হাত, পা, হাঁটু, কপাল ইত্যাদি অংশগুলো।  তাই রাতে শোয়ার আগে আমাদের সবার শরীরের এইসব জায়গায় ভালো করে ক্রিম মেখে তারপর মোজা পড়ে নেয়া। যাতে আমাদের শরীরের সকাল পর্যন্ত আদ্রতা বজায় থাকে।

 

সাবান কম ব্যবহার করা

শীতকালে গোসলের সময় আমাদের শরীরে সাবান কম ব্যবহার করা উত্তম। কারণ সাবান আমাদের ত্বকে শুষ্কতা সৃষ্টি করে। সুতরাং আমাদের উচিৎ গোসলে কিংবা হাত-মুখ ধুতে সাবান যতটা সম্ভব কম ব্যবহার করা। গোসলে কিংবা হাত-মুখ ধুতে  সাধারণত গ্লিসারিন সমৃদ্ধ সাবান ব্যবহার করাই উত্তম।

  • সিক্রেট বডিপ্যাক

    কালচে দাগ, রোদে পোড়া তুলে খুব দ্রুত ব্রাইট,গ্লো করে,ফর্সা করে।হাত, পা,ঘাড়,গলা,পেট,পিঠ সবখানে সমানভাবে ব্রাইট করে।সফট…
    Add to cart 450.00৳ 

অলিভ অয়েল ব্যবহার করা

শীতকালে আমাদের শরীরের ত্বক ফেটে যায়। এতে সৃষ্টি হতে পারে বিভিন্ন চর্মরোগের। তাই আমাদের এ রোগ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য রাতে ঘুমানোর আগে পুরো শরীরে অলিভ অয়েল মাখা। এতে ত্বকের শুষ্কতা কেটে যাবে এবং ত্বক সজীব রাখতে সাহায্য করবে।



শরীরকে আদ্র রাখুন

অনেকের ঘরে শীতকালে হিটার ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু হিটার ঘরের ভিতরের পরিবেশকে গরম করে তুললেও বাতাসকে খুব শুষ্ক করে দেয়, যা আমাদের ত্বকের জন্য একদমই ভালো নয়। তাই আপনারা হিটারের বদলে চেষ্টা করুন হিউমিডিফায়ার ব্যবহার করার। এছাড়াও আপনি যদি রোদে বের হন তার আগে সানস্ক্রিন মাখাসহ অতিরিক্ত ঠাণ্ডায় হাতমোজা, মাথায় রুমাল ব্যবহার করলে অনেক উপকার পাবেন।

উপরের টিপস গুলি মেনে চললে শীতকালে আপনার ত্বক খুবেই কোমল এবং সজীব থাকবে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

sixteen − 13 =